প্রাণীজ ফাইবার | Animal Fibre

প্রাণীজ ফাইবার

প্রাণীজ ফাইবার বলতে প্রাণী অথবা জীবজন্তু থেকে নেওয়া ফাইবারকে বুঝায়। প্রাণীর ফাইবার হলো উল/পসম ফাইবার।

নিঃসন্দেহেই সর্বপ্রথম ফাইবার হচ্ছে প্রাণীজ ফাইবার। কারণ আদিমকাল থেকেই মানুষ জীবজন্তুর পশম সহ চামড়া গায়ে দিয়ে লজ্জা নিবারণ করত। তাই পোশাকের জন্য ব্যবহৃত পশমই হলো সর্বপ্রথম ফাইবার। প্রাণীজ ফাইবার সাধারনত পশম বহনকারী প্রাণী যেমন: ছাগল, ভেড়া, মিংক, খরগোশ, শিয়াল ইত্যাদির কাছ থেকে পাওয়া যায়।

প্রাণীজ ফাইবার/উল ফাইবারের উপাদানসমূহ

কেরাটিন (Keratin) – ৩৩%

ডার্ট (Dirt) – ২৬%

সুইন্ট (Suint) – ২৮%

চর্বি (Fat) – ১২%

মিনারেল (Mineral) – ১%

প্রাণীজ/উল ফাইবারের বৈশিষ্ট্য

  • উল ফাইবারের দৈর্ঘ্য সাধারনত ১-৮ ইঞ্চি হয়ে থাকে।
  • উল ফাইবারের রং সাধারনত বাদামি নয়তো হালকা ক্রিম কালার হয়।
  • এই ফাইবারের পানি ধারণক্ষমতা অনেক বেশি।
  • শীতকালে এই পোশাকের চাহিদা অনেক বেশি থাকে।
  • উল ফাইবার দ্বারা তৈরিকৃত পোশাক শীতকালে আরামদায়ক।
  • উল ফাইবার ১১০° পর্যন্ত তাপ নিতে পারে তার বেশি হলে ফাইবার তার নিজস্ব শক্তি হারিয়ে ফেলে।

সতর্কতাঃ

প্রাণীজ ফাইবার/উল ফাইবার দ্বারা তৈরিকৃত পোশাক পোকামাকড়ের হাতে বেশী আকৃষ্ট হয় তাই পোকামাকড়ের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আলাদা ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।


পোস্টটি পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ

আপনার পছন্দ হতে পারে

হেম্প ফাইবার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন

জুট ফাইবার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন

জুট ফাইবারের ত্রুটি গুলো জানতে ক্লিক করুন

ফাইবার টেস্ট সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন

Leave a Comment