মার্চেন্ডাইজিং কি গার্মেন্টস এবং মার্চেন্ডাইজিং কিভাবে করা হয়

আজকে আমরা মার্চেন্ডাইজিং কি এবং গার্মেন্টস মার্চেন্ডাইজিং নিয়ে আলোচনা করব।

মার্চেন্ডাইজিং করতে হলে আপনাকে জানতে জানতে হবে।

  • আপনি কি জানেন মার্চেন্ডাইজিং কি?
  • আপনি কেন একজন মার্চেন্ডাইজার হতে চান?
  • মার্চেন্ডাইজিং জব এর জন্য আপনার সিভি কিভাবে প্রস্তুত করবেন?
  • গার্মেন্টস অথবা অ্যাপারেল মার্চেন্ডাইজিং।

এটা জানার আগে আমাদের কিছু ইংরেজি শব্দের সাথে পরিচিত হওয়া অনেক জরুরী

মূলত মার্চেন্ডাইজিং (Merchandising) শব্দটির ইংরেজি শব্দ (merchan) থেকে এসেছে, যার অর্থ ব্যবসায়ী।

মার্চেন থেকে মার্চেন্ডাইজ (Merchandise) যার অর্থ ব্যবসার উদ্দেশ্যে পণ্য দ্রব্য ক্রয় বিক্রয়। মার্চেন্ডাইজিং থেকে মার্চেন্ডাইজার যার কাজই হলো বিক্রয় ডিপার্টমেন্ট পরিচালনা করা

এক কথায় বলতে গেলে গার্মেন্টস মার্চেন্ডাইজিং বলতে, এক পক্ষ থেকে কাঁচামাল ক্রয় করে সেই কাঁচামাল থেকে পণ্য প্রস্তুত করে সেই প্রস্তুতকৃত অন্য অন্য পক্ষের কাছে বিক্রি করা, এটাই মূলত গার্মেন্টস মার্চেন্ডাইজিং।

আরো সহজভাবে বলতে গেলে, একটি গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রির মার্চেন্ডাইজার একজন বায়ারের কাছ থেকে অর্ডার কালেক্ট করে, সেই অর্ডার পরিপূর্ণ করার জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল যেমন ফেব্রিক, ইয়ার্ন, কেমিক্যাল, ডাইস, জিপার, বাটন, ইত্যাদি বিভিন্ন জায়গা থেকে ক্রয় করে গার্মেন্টস এর মাধ্যমে বায়ারের চাহিদা মতো পণ্য তৈরি করে সেই পণ্য বায়ার এর নিকট পৌছানো পর্যন্ত।

একজন গার্মেন্টস মার্চেন্ডাইজার কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মাথায় রাখতে হবে।

যেমন, বায়ার এর নিকট থেকে অর্ডার পাওয়ার পর থেকে শিপমেন্ট পর্যন্ত

  1.  পণ্য প্রস্তুত করার জন্য কাঁচামালের খরচ
  2. গার্মেন্টসের শ্রমিকদের খরচ/বেতন
  3. গার্মেন্টসের বিদ্যুৎ বিল
  4. গার্মেন্টস এর ভাড়া ইত্যাদি।

টোটাল সব খরচ যেন বিক্রিত পণ্যের দামের থেকে কম হয়। অর্থাৎ বায়ারের কাছে পণ্য বিক্রয় করে যেন গার্মেন্টসের লাভ থাকে সে বিষয়টি একজন মার্চেন্ডাইজার এর মাথা থাকতে হবে।

বায়ার এর থেকে অর্ডার রিসিভ করা থেকে শিপমেন্ট পর্যন্ত অ্যাপারেল গার্মেন্টস মার্চেন্ডাইজার এর যা যা করণীয়:

অর্ডার রিসিভ 

গার্মেন্টস মার্চেন্ডাইজারের সর্ব প্রথম কাজ হলো বায়ারের কাছ থেকে বড় রিসিভ করা, অর্ডার টির সম্পূর্ণ টেকনিকেল দিক বুঝে নেওয়া।

সেম্পল ডেভেলপমেন্ট

বায়ারের অর্ডার সিট এ যেভাবে অর্ডার দেওয়া আছে ঠিক সেভাবে স্যাম্পল তৈরি করা, এটাই স্যাম্পল ডেভেলপমেন্ট।

পণ্যের মূল্য নির্ধারণ

মার্চেন্ডাইজার কে অবশ্যই বায়ারের থেকে পণ্যের মূল্য নির্ধারণ করার পূর্বে গার্মেন্টসের লাভ এর দিকটা মাথায় রাখতে হবে।

অর্ডার কনফার্ম

বায়ার এর নিকট থেকে অর্ডার কনফার্ম করা।

সেম্পল তৈরি করা

অর্ডার কৃত পণ্যের স্যাম্পল তৈরি করে বায়ার এর নিকট দেয়া।

রিকুইজেশন বাল্ক ফেব্রিক 

প্রোডাকশন প্রস্তুত করার জন্য কি পরিমান ফেব্রিক লাগবে তার সিট প্রস্তুত করা।

রিকুইজেশন এক্সেসরিজ

অর্ডারকৃত পণ্য প্রস্তুত করার জন্য যা যা প্রয়োজন সেগুলোর জন্য পারচেজ অর্ডার তৈরি করতে হবে।

নমুনা বোর্ড

প্রোডাক্টটি প্রস্তুত করার জন্য যা যা অ্যাকেসরিজ প্রয়োজন সেগুলো স্যাম্পল নিয়ে বায়ারের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে।

ম্যাটারিয়াল কালেকশন

অর্ডার সম্পূর্ণ করার জন্য যা যা ম্যাটারিয়াল প্রয়োজন হয় তা কালেক্ট করা।

লিস্ট চেক

প্রোডাকশনে যেন কোনো বিঘ্ন না ঘটে সে কারণে বার বার লিস্ট চেক করা যাতে করে কোন ম্যাটারিয়াল বাদ না পড়ে।

পিপি সেম্পল

পিপি সেম্পল ক্ষেত্রে সব একচুয়াল হতে হবে, বার যেভাবে চেয়েছে সেভাবেই সেম্পল প্রস্তুত করতে হবে।

প্রি প্রোডাকশন মিটিং

প্রোডাকশন প্রস্তুত করার আগে এই মিটিং করা হয়।

এই মিটিং এ প্রোডাকশনের কর্মরত সব কর্মচারী থাকবে। মিটিং এর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রোডাকশন টি সম্পন্ন করা।

বাল্ক প্রোডাকশন

বাল্ক প্রোডাকশন অর্থাৎ বায়ার যেই অর্ডার করেছে সেই অর্ডার অনুযায়ী পণ্য প্রস্তুত করা।

চেক ডেইলি প্রোডাকশন এন্ড কঝয়ালিটি রিপোর্ট

বায়ারের অর্ডারটি নির্ধারিত সময়ে শিপমেন্ট করতে হবে। তাই একজন মার্চেন্ডাইজার কে আগে থেকেই প্ল্যানিং করতে হবে,যে প্রতিদিন কি পরিমান প্রোডাকশন হলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শিপমেন্ট করা সম্ভব।

অনলাইন ইনস্পেকশন

অনলাইন ইনস্পেকশন মানে প্রোডাকশনের কাজ চলাকালীন সময়ে বায়ারের সাথে কথা বলে ইন্সপেকশন এর ডেট ফিক্সট করতে হবে যাতে করে বায়ারের নির্ধারিত প্রতিনিধি এসে প্রোডাকশন কৃত পণ্যের কোয়ালিটি ঠিক আছে কিনা তা চেক করে।

ফাইনাল ইনস্পেকশন ফর বাল্ক প্রোডাকশন

প্রডাকশন শেষ হবার পরে কিন্তু শিপমেন্ট করার আগে বায়ারের সাথে কথা বলে সর্বশেষ ইনস্পেকশন এর জন্য ডেট ফিক্সট করতে হবে। তার জন্য ফাইনাল ইনস্ট্রাকশন ফর বাল্ক প্রোডাকশনের সিট প্রস্তুত করতে হবে।

সেম্পল সেন্ড টু থার্ড পার্টি টেস্টিং সেন্টার

সেম্পল গুলোকে থার্ড পার্টির কাছে পাঠাতে হবে সেম্পল এর কোয়ালিটি টেস্ট করার জন্য।

শিপমেন্ট ফাইনাল ইন্সপেকশন

প্রোডাকশন কৃত সকল পণ্য বায়ার এর নিকট পাঠানোর জন্য শিপমেন্ট করতে হবে।

সব ডকুমেন্ট বায়ারকে কে পাঠাতে হবে

অর্ডারের কোয়ান্টিটি সহ সবধরনের ডকুমেন্ট বায়ারের নিকট পাঠাতে হবে।

রিসিভ পেমেন্ট

বায়ারকে বায়ারের অর্ডার অনুযায়ী পণ্য বুঝিয়ে দিতে পারলে বায়ার ব্যাংকে পেমেন্ট পাঠিয়ে দিবে।

Leave a Comment