ফেব্রিকের লেয়ার তৈরি করার শর্তাবলী (Conditions of Making Fabric’s Layer)

আজকে আমরা ফেব্রিকের লেয়ার তৈরি করার শর্তাবলী নিয়ে আলোচনা করব।

ফেব্রিকের লেয়ার কি

Fabric's Layer

সাধারণত গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে অনেক পোশাকের অর্ডার আসে, তাই অনেক পোশাকের ফেব্রিক একসাথে কাটিং করার জন্য ফেব্রিকের স্তর তৈরি করতে হয়। ফেব্রিকের স্তরকেই ফেব্রিকের লেয়ার বলা হয়।

ফেব্রিকের লেয়ার তৈরি শর্তাবলী

  1. ফেব্রিকের প্লাই এলাইমেন্ট করন।
  2. সঠিক প্লাই টেনশন।
  3. ফেব্রিক সমতল হতে হবে।
  4. ফেব্রিকের ত্রুটি দূর করতে হবে।
  5. ফেব্রিকের প্লাইয়ের দিক নির্ধারণ করতে হবে।
  6. স্থির বিদ্যুৎ দূরকরন।
  7. ফেব্রিকের লেয়ার যেন বিকৃত না হয়।
  8. ফেব্রিক চেক/স্ট্রাইপ ম্যাচিং।

ফেব্রিকের প্লাই এলাইমেন্ট করন

ফেব্রিকের যখন লেয়ার তৈরি হবে তখন এর সাইজ হবে 8 থেকে 10 ইঞ্চি অথবা 4 থেকে 6 ইঞ্চি, ফেব্রিকের লেয়ার কম অথবা বেশি হতে পারে। ফেব্রিকের লেয়ার যেহেতু মোটা হয় তাই যখন লেয়ার তৈরি করবে তখন ফেব্রিকের প্রস্থ সঠিক থাকতে হবে যদি ঠিক না থাকে তাহলে ফেব্রিকের কাটিং এর সময় ভুল হবে। মূলত এটাই ফেব্রিকের প্লাই এলাইনমেন্ট করন।

সঠিক প্লাই টেনশন

টেনশন মানে হচ্ছে টান। ফেব্রিকের যখন লেয়ার তৈরি করা হবে। তখন যদি ফেব্রিকে টেনশন বেশি থাকে মানে টান টান থাকে ফেব্রিক তাহলে লেয়ারে যখন প্যার্টান বসিয়ে ফেব্রিক কাটা হবে তখন ওই প্যার্টানের অংশ ছোট হয়ে যাবে।তাই ফেব্রিকের যখন লেয়ার তৈরি করা হয় তখন সঠিক টেনশন রাখলে আর এই সমস্যা হবে না।

ফেব্রিক সমতল হতে হবে

ফেব্রিক লেয়ার তৈরি করার সময় প্রত্যেকটি ফেব্রিক যেন সমান হয় তাই হচ্ছে ফেব্রিকের সমতল। যদি ফেব্রিক সমতল/সমান না হয়ে ফেব্রিক যদি কুঁচকে যায় তাহলে লেয়ারের কুঁচকে যাওয়া অংশে যেই প্যার্টান টি পরবে তা রিজেক্ট হয়ে যাবে।

ফেব্রিকের ত্রুটি দূর করতে হবে

যে ফেব্রিকটিকে লেয়ার আকারে পরিণত করা হবে সেই ফেব্রিকে যেন কোন ত্রুটি না থাকে। ত্রুটিযুক্ত ফেব্রিক দ্বারা পোশাক তৈরি করা হয় তাহলে পোশাক রিজেক্ট বলে গণ্য হবে।

ফেব্রিকের এর ত্রুটি বলতে

  • ক্রিজ মার্ক
  • পাট্টা
  • অয়েল স্পট
  • আইরন স্পোর্ট
  • হোল ইত্যাদি আরও বিভিন্ন ধরনের ত্রুটি রয়েছে।

ফেব্রিকের প্লাইয়ের দিক নির্ধারণ

ফেব্রিকের প্লাই এর দিক নির্ধারণ বলতে, কিছু কিছু ফেব্রিক আছে যার ফ্রন্ট সাইড একরকম, ব্যাক সাইড অন্যরকম। আবার কিছু কিছু ফেব্রিকের ফ্রন্ট সাইড এবং ব্যাক সাইড একই রকম। এ সমস্ত দিক লক্ষ্য করে ফেব্রিকের ফ্রন্ট সাইড এবং ব্যাক সাইড ঠিক রাখতে হবে।

স্থির বিদ্যুৎ দূরকরন

ফেব্রিকের লেয়ার প্রস্তুত করার জন্য ফেব্রিকে যখন মেশিন দ্বারা টেবিলে বিছানো হয়, তখন ফেব্রিক এর সাথে ফেব্রিকের ঘর্ষন সৃষ্টি হয়,তার ফলে স্থির বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়। বিশেষ করে সিনথেটিক ফেব্রিক এর ক্ষেত্রে স্থির বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়। স্থির বিদ্যুৎ যেন উৎপন্ন না হয় তার জন্য রুমের বাতাসের আর্দ্রতা কমিয়ে দিতে হবে অথবা অন্য কোনো পদ্ধতি গ্রহণ করতে হবে।

ফেব্রিকের লেয়ার যেন বিকৃত না হয়

মাঝে মাঝে ফেব্রিকের লেয়ার প্রস্তুত করার পরে, কাটিং এর পূর্বে যখন ফেব্রিক এর উপরে ম্যানুয়ালি প্যার্টান অংকন করা হয় তখন ফেব্রিকের লেয়ার বিকৃত হবার সম্ভাবনা থাকে। ফেব্রিকের লেয়ার যাতে বিকৃত না হয় তার দিকে লক্ষ রাখা।

ফেব্রিক চেক/স্ট্রাইপ ম্যাচিং

ফেব্রিকের লেয়ার তৈরি করার সময় ফেব্রিকের চেক/স্ট্রাইপ সঠিকভাবে ম্যাচিং করে নিতে হবে যাতে করে পরবর্তী প্রক্রিয়ার সময় কোন ধরনের সমস্যা না হয়।


উপরিউক্ত পোস্টটি পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ।


আমাদের সাথেই থাকুন – Textile Bangla

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল – Textile Bangla

Leave a Comment