ট্রিমিংস সম্পর্কে বিস্তারিত

এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা ট্রিমিংস সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবো।

ট্রিমিংস (Trimming)

পোশাকের মধ্যে ফেব্রিক ছাড়া যে সমস্ত জিনিস লাগানো থাকে তাই হল ট্রিমিংস।

যেমন: জিপার, বাটন, লেবেল, মোটিফ, সেলাই সুতা, ইলাস্টিক, ইন্টারলাইনিং ইত্যাদি।

পোশাক তৈরি করার জন্য যে উপকরণ গুলো ব্যবহার করা হয় তার মধ্যে ট্রিমিংস অন্যতম। পোশাক তৈরি করার জন্য ট্রিমিংস খুবই প্রয়োজনীয়। পোশাক শিল্পের জন্য ট্রিমিংস অন্যতম এবং এর ব্যবহার বহূবিধ। বিভিন্ন রকম পোশাকের জন্য বিভিন্ন রকম ট্রিমিংস ব্যবহার করা হয়।

চলুন ট্রিমিংসগুলো দেখে নেয়া যাক।

  • লেবেল
  • চেইন
  • লেইস
  • মোটিফ
  • বোতাম
  • হূক
  • সেলাই সুতা ইত্যাদি।

পোশাকে ট্রিমিংস ব্যবহার করার ফলে পোশাকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়। কিন্তু এই ট্রিমিংসই পোশাকের সৌন্দর্য নষ্টের কারণ হতে পারে, তাই পোশাকের গুনাগুন এবং পোশাকের ধরন অনুযায়ী টিমিংস বাছাই করে ব্যবহার করতে হবে, এবং ভালো এবং মানসম্পন্ন ট্রিমিংস ব্যবহার করতে হবে।

ট্রিমিংস এর গুণগত মান

ট্রিমিংস ব্যবহার করার পূর্বে যে গুণগতমান গুলোর উপর লক্ষ্য করা উচিত।

  • মরীচিকা
  • রঙের স্থায়িত্ব
  • ট্রিমিংস কতদিন ব্যবহার করা যাবে ইত্যাদি।

ট্রিমিংস এর প্রকারভেদ (Types of Trimming)

ট্রিমিংস দুই প্রকার

  • ভিসিবল ট্রিমিংস (Visible Trimming)
  • ইনভিজিবল ট্রিমিংস (Invisible Trimming)

ভিসিবল ট্রিমিংস (Visible Trimming)

যে ট্রিমিংসগুলো দেখা যায় তাই হলো ভিজিবল ট্রিমিংস।

যেমন : জিপার, বাটন, লেবেল ইত্যাদি।

ইনভিজিবল ট্রিমিংস (Invisible Trimming)

যে টিমিংসগুলো দেখা যায় না তাই হল ইনভিজিবল ট্রিমিংস।

যেমন : ইলাস্টিক, ইন্টারলাইনিং ইত্যাদি।

প্রয়োজনীয় কিছু লিংক।

নিট ফেব্রিক এর সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে জানতে – ক্লিক করুন

ফ্যাশনের বিভিন্ন অ্যাক্সেসরিজ সম্পর্কে জানতে – ক্লিক করুন

Takt Time কী এবং Takt Time নির্ণয়ের পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে – ক্লিক করুন

বাংলাদেশের সেরা বুটিক হাউসগুলো সম্পর্কে জানতে – ক্লিক করুন

পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment