স্লাব ফেব্রিক সম্পর্কে জেনে নিন (Slub Fabric)

এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা স্লাব ফেব্রিক সম্পর্কে জানতে পারব।

স্লাব ফেব্রিক

যে ফেব্রিকের গায়ে দৈর্ঘ্য বরাবর স্লাব ফাইবারের লম্বা লম্বা দাগ থাকে, যা দেখলে বুঝা যায় যে ফেব্রিকের গায়ে আলাগা ভাবে লাগানো আছে তাকেই স্লাব ফেব্রিক বলা হয়। সহজ ভাবে বলতে গেলে, থিক এবং থিন (Thick & Thin) যুক্ত শব্দ দ্বারা তৈরি ফেব্রিকে স্লাব ফেব্রিক বলা হয়। 

স্লাব মূলত এক ধরনের ডিফেক্ট ফেব্রিক, যদিও সময়ের বিবর্তনের কারণে এটি ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে। স্লাব ফেব্রিক আলাদা বৈশিষ্ট্য ও আলাদা অনুভূতি দেওয়ার কারণে এই ফেব্রিকের অনেক চাহিদা।

সিঙ্গেল জার্সি আর ডাবল জার্সি ফেব্রিক এর মধ্যে পার্থক্য – জানতে ক্লিক করুন

স্লাব কি

সাধারণত মোডাল ফাইবার দ্বারা স্লাব ইয়ার্ন তৈরি হয়। এগুলো মেল্ট স্পিনিং এর সিপ্নারেট দ্বারা তৈরি করা হয়। তারপর ইয়ার্নকে স্লাব এটাচিং ডিভাইস দিয়ে কটন সুতা সাথে রিং ফ্রেমে স্পিনিং করা হয় তারপর স্লাব ইয়ার্ন তৈরি হয়।

স্লাব ফেব্রিকের কিছু বৈশিষ্ট্য

  • স্লাব ফেব্রিকের স্পাইরিলিটি অথবা টুইস্টিং প্রবণতা বেশি।
  • স্লাব ফেব্রিকের হ্যান্ডফিল ভালো হয়না।
  • হালকা রং (Lite color) করলে ডাইং এর আগে ব্লিচিং এর পর ডিমিনারাইলেজশন করে নিতে হয়।
  • স্রিংকেজের % অন্যান্য ফেব্রিক এর তুলনায় অনেক বেশি।
  • শুধু কটনের পার্ট ডাইং করা হলে স্লাব গুলো আনডাইং থেকে যায়‌।
  • স্লাব ফেব্রিক ডাইং এবং ফিনিশিং করার পরে হোল হওয়ার মাত্রা বেশি থাকে।
  • নিট ফেব্রিক এর স্লাব তৈরি করা হয় মোডাল ফাইবার থেকে।
  • ওভেন ফেব্রিক এর স্লাব তৈরি করা হয় কটন ফাইবার থেকে।

Leave a Comment