মানুষের রূহ কবজের জন্য ফেরেশতাদের প্রস্তুতি

যখন কোন লোকের আয়ু শেষ হয়ে মৃত্যুর সময় নিকটবর্তী হয়, তখন তার রিজিক বণ্টনকারী ফেরেশতা এসে তাকে বলে, আসসালামু আলাইকুম, আমার ওপর তোমার খাদ্য বন্টন ও বরাদ্দ করার ভার অর্পিত ছিল, আজ আমি সারা দুনিয়া তন্ন তন্ন করে খুঁজেও তোমার খোরাকের জন্য একটি দানা কনাও জোগাড় করতে পারলাম না, অতএব আজ থেকে তোমার প্রতি আমার কর্তব্য শেষ – আমি বিদায় হলাম।

অতঃপর আর একজন ফেরেশতা এসে তাকে সালাম জানিয়ে বলে, আমি তোমার পানীয় সরবরাহের ভারপ্রাপ্ত ফেরেশতা। আজ সারা দুনিয়া খুঁজে তোমার জন্য এতোটুকু পানীয় জোগাড় করতে পারিনি, সুতরাং তোমার শেষ মুহূর্ত উপস্থিত এবং তোমার প্রতি আমার কর্তব্য ও দায়িত্ব শেষ – আমি তোমার নিকট থেকে চিরতরে বিদায় গ্রহণ করছি।

তারপর আরো একজন ফেরেশতা এসে তাকে সালাম জানিয়ে বলে, আমি তোমার সময় ও কার্য সমূহ পরিচালনার জন্য নিযুক্ত ছিলাম। আজ তোমার জন্য সারা দুনিয়ার কোথাও একটু অঙ্গ সঞ্চালন করার মত এতটুকুও খুঁজে পেলাম না এবং তোমার দুনিয়ায় অবস্থান করার মতো এতটুকু সময় জোগাড় করতে পারলাম না, সুতরাং তোমার নিকট থেকে বিদায় নিচ্ছি।

তারপর কেরামন ও কাতেবীন নামক ফেরেশতাদ্বয় এসে তাকে সালাম জানিয়ে বলে, আমরা তোমার পাপ ও পূর্ণ কার্যসমূহ লিপিবদ্ধ করার জন্য নিযুক্ত ছিলাম। আজ তোমার জন্য দুনিয়াতে কোন রূপ পাপ ও পূর্ণকার্য অবশিষ্ট নেই। সুতরাং আমাদের লিখিবার মত আর কিছুই নেই। আমাদের কর্তব্য শেষ হয়েছে, কাজেই আমরা তোমার নিকট থেকে বিদায় নিচ্ছি।

আর একজন ফেরেশতা এসে তাকে সালাম জানিয়ে বলে, আমি তোমার নিশ্বাস ও প্রশ্বাস এর ভারপ্রাপ্ত ফেরেশতা। আজ সারা দুনিয়া খুঁজে তোমার নিঃশ্বাস গ্রহণের জন্য একটু বায়ুও খুঁজে পেলাম না,, অতএব তোমার শেষ মুহূর্ত উপস্থিত এবং তোমার প্রতি আমার দায়িত্ব ও কর্তব্য শেষ। আমি তোমার নিকট থেকে চিরবিদায় নিচ্ছি। ঠিক সেই মুহূর্তে মালাকুল মউত এসে তার রুহ কবজ করে নিয়ে প্রস্থান করে।

আরো ভালো ভালো ইসলামিক পোস্ট পেতে আমাদের ইসলামিক ক্যাটাগরি ভিজিট করুন

পোস্টটি পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ

Leave a Comment