হজ্জের ফজিলত

হজ্জের ফজিলত অগণিত ও অপরিসীম, এ বিষয়ে অনেক হাদীস বর্ণিত রয়েছে যেমন –

হযরত আবু হুরায়রা (রা:) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, যে ব্যক্তি আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে হজ্জ করলো এবং হজ্জ পালনকালে কোন ধরনের অশালীন কথা ও কাজে কিংবা কোন গুনাহের কাজে লিপ্ত হল না, সে যেন নবজাত শিশুর ন্যায় নিষ্পাপ অবস্থায় হজ্জ থেকে প্রত্যাবর্তন করল (বুখারী ও মুসলিম)।

হযরত আবু হুরায়রা (রা:) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, এক ওমরা অপর ওমরা পর্যন্ত সংগঠিত গুনাহসমূহের কাফফারা স্বরূপ। তিনি আরো বলেছেন “হজ্জে মাবরূর বা হজ্জের প্রতিদান জান্নাত ছাড়া আর কিছুই নয়।” (বুখারী ও মুসলিম)।

তাই হজ্জ ফরজ হওয়ার শর্তগুলো সকল মুসলমানের জানা উচিত। নিম্নে শর্তগুলো দেওয়া হল

  • মুসলমান হওয়া।
  • আর্থিক সামর্থ্য থাকা। হজ্জে গমনের জন্য সৌদি আরবে যাওয়া আসার খরচ, সেখানে থাকা কালীন ব্যয় নির্বাহ এবং হজ্জ সম্পাদনকালীন সময়ে পরিবার-পরিজনের ভরণ পোষণের সংগতি থাকা।
  • শারীরিকভাবে সুস্থ ও সক্ষম হওয়া।
  • আক্কেল ও বালেক তথা শরীয়তের দৃষ্টিতে প্রাপ্তবয়স্ক ও সুস্থ মস্তিষ্ক হওয়া।
  • যাতায়াতের রাস্তা নিরাপদ থাকা।
  • মহিলাদের সাথে মাহরাম থাকা।

আরো ভালো ভালো ইসলামিক পোস্ট পেতে আমাদের ইসলামিক ক্যাটাগরি ভিজিট করুন

পোস্টটি পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ

Leave a Comment