পলিটেকনিকের সেরা ৫টি ডিপার্টমেন্ট

আপনারা যারা পলিটেকনিকে ভর্তি হতে ইচ্ছুক, তারা অবশ্যই কারো না কারো কাছ থেকে জিজ্ঞেস করেছেন, যে কোন ডিপার্টমেন্টটি ভালো হবে। একেকজন একেকরকম মত প্রকাশ করবে, যে এটা ভালো না ওইটা ভালো। সবাই সবার পয়েন্ট অব ভিউ থেকে যেটা ভালো লাগে ওইটাই আপনাকে বলবে।

পলিটেকনিকে ভর্তি হবার আগে প্রায় সব স্টুডেন্ট এই ঝামেলাটা ফেস করে থাকে। 

আর ঝামেলা নয় আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি সহজ সমাধান।

আজকের এই পোস্টটিতে সরকারি + বেসরকারি চাকরির চাহিদা যেই ডিপা র্টমেন্ট গুলোতে বেশি তা তুলে ধরার চেষ্টা করলাম।

সিভিল

বর্তমান প্রেক্ষাপটের উপর ভিত্তি করে সিভিল ডিপার্টমেন্ট এর চাহিদা বেশি। বিশেষ করে সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে, বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্রে চাহিদা ভাল।

ইলেকট্রিক্যাল

আমার মতে, ইলেকট্রিক্যাল ডিপার্টমেন্টই পলিটেকনিক এর মধ্যে সবথেকে ভালো ডিপার্টমেন্ট। কারণ বাংলাদেশ ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা অনেক বেশি, তার সাথে সাথে বিদেশেও ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা বেশি। ইলেকট্রিক্যালের চাকরিতে ভালো ভাবে টিকে থাকতে পারলে কয়েক বছরের ভিতর লোভনীয় বেতন পাওয়া সম্ভব।

মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্ট

মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্ট এর চাহিদাও চাকরির ক্ষেত্রে কম নয়। কারণ বাংলাদেশে খুব দ্রুত বড় বড় কোম্পানি সৃষ্টি হচ্ছে, টেক্সটাইল কোম্পানি + বড় বড় পাওয়ার হাউজ তৈরি হচ্ছে সেখানে অনেক মেকানিকেল ইঞ্জিনিয়ার এর প্রয়োজন।

কম্পিউটার ডিপার্টমেন্ট

কম্পিউটার ডিপার্টমেন্ট খুবই ভালো ডিপার্টমেন্ট। আগে বাংলাদেশ কম্পিউটার ডিপার্টমেন্ট এর চাহিদা তেমন ছিলনা। কিন্তু বর্তমানে কম্পিউটার ডিপার্টমেন্ট এর চাহিদা অনেক বেশি কারণ, হাইটেক পার্ক, আরও বিভিন্ন ধরনের স্কোপ তৈরি হচ্ছে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং চাকরির জন্য।

টেক্সটাইল ডিপার্টমেন্ট

বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটের উপর ভিত্তি করে টেক্সটাইল ডিপার্টমেন্ট বাছাই করা হয়েছে। কারণ বাংলাদেশ দিনের-পর-দিন টেক্সটাইল কলকারখানা, টেক্সটাইল গার্মেন্টস বেড়েই চলেছে। কিন্তু টেক্সটাইল ডিপার্টমেন্ট এর ক্ষেত্রে সরকারি চাকরির চাহিদা তেমন বেশি নেই। বেসরকারি চাকরির চাহিদা সীমাহীন।

Note. অন্যান্য ডিপার্টমেন্ট গুলো ভালো।

প্রয়োজনীয় কিছু লিংক।

গার্মেন্টস স্টক-লট এর ব্যবসা করতে চান। তার আগে জেনে নিন কিছু টিপস সম্পর্কে জানতে – ক্লিক করুন

পলিটেকনিকে ভর্তি হবার আগে যে তথ্যগুলো জানা উচিত জানতে – ক্লিক করুন

টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কেন করব জানতে – ক্লিক করুন

সেলাই মেশিন সম্পর্কে জানতে – ক্লিক করুন

Leave a Comment