মাদকদ্রব্য উৎপাদন ও বাজারজাত এবং ব্যবহার সম্পর্কে ইসলামের যা বলে

আমরা যারা মুসলমান তাদের জন্য মাদক দ্রব্য সংশ্লিষ্ট কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকা হারাম। আল্লাহ তাআলা মাদক দ্রব্য হারাম করেছেন এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট ১০ ব্যক্তি কে অভিশাপ দিয়েছেন।

যে ১০ ব্যক্তি কে অভিশাপ দিয়েছেন

  • রস নি:সরনকারী
  • মাদক তৈরিকারী
  • মাদক সেবনকারী
  • মাদক বহনকারী
  • মাদক গ্রহণ করেন যে
  • মদ পরিবেশনকারী
  • মদ বিক্রেতার
  • মাদকদ্রব্য হতে লব্ধ মূল্য গ্রহণকারী
  • মাদকদ্রব্য ক্রেতা
  • যার জন্য মাদক দ্রব্য ক্রয় করা হয়

মাদকদ্রব্য নিষিদ্ধ তা সম্পর্কে কুরআনে বর্ণিত আছে যে, ‘হে মুমিনগণ! এই মদ, জুয়া, প্রতিমা এবং ভাগ্য নির্ধারক শরষমূহ এসব তো শয়তানের অপবিত্র কার্য। অতএব, এগুলো থেকে দূরে থাকো, যাতে তোমরা পরস্পরের মাঝে শত্রুতা ও বিদ্বেষ ছড়িয়ে দিতে এবং আল্লাহর স্মরণ ও নামাজ থেকে তোমাদেরকে বিরত রাখতে। অতএব তোমরা এখনো কি নিভৃও হবে না ? (মায়িদা – ৯০,৯১)

নবী করীম (সা.) বলেছেন যে, মদপান এবং ঈমান একসাথে থাকতে পারে না।

‘মদপানের মুহূর্তে মদপানকারী মুমিন থাকে না।’ – (বুখারী ও মুসলিম)

আরো ভালো ভালো ইসলামিক তথ্য পেতে আমাদের ইসলামিক ক্যাটাগরি ভিজিট করুন।

Leave a Comment