নাজাতপ্রাপ্ত দল

উম্মতে মুহাম্মদী বহু দলে বিভক্ত হওয়ার মধ্যে যে মতবাদ ও মত পার্থক্য সৃষ্টি হইবে তন্মধ্যে একমাত্র মুক্তিপ্রাপ্ত দল হল আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত। রসূলে পাক (সা.) কে প্রশ্ন করা হইল, ইয়া রাসুল আল্লাহ (সা.) নাজাত প্রাপ্ত দল কোনটি? তখন তিনি ফরমাইলেন, আমি এবং আমার সাহাবাগণ যে মতের উপর কায়েম রহিয়াছি এই মতের উপর যারা কায়েম থাকিবে, তারা নাজাত প্রাপ্ত দল।

রসূলে পাক (সা.).যে সুন্নত কায়েম করেছিলেন, সাহাবীগণ তাহার হুবহু অনুসরণ করে আল্লাহ ও রাসূলের প্রিয় পাত্র হয়েছিলেন। শুধু তাই নয় দুনিয়া জীবদ্দশায় স্বয়ং আল্লাহর নিকট হতে বেহেশতের সার্টিফিকেট লাভ করিতে সক্ষম হয়েছিলেন। কাজেই উম্মতের এই শ্রেষ্ঠ তাহার যুগে যারা রাসূলে আকরাম (সা.) ও তাহার সম্মানিত সাহাবীগণের জীবনাদর্শ বা সুন্নতের উপর আমল করিবে এবং জীবন চলার পথে হুবহু অনুসরণ করবে তারা সুন্নী বা আহলে সুন্নাত ওয়ালার জামাতের অনুসারী আর তারাই নাজাত পাওয়ার অধিকারী।

কেন রাসূলে আকরাম (সা.).যে সুন্নত কায়েম করে গিয়েছেন কেয়ামত পর্যন্ত তা দুনিয়াতে কায়েম থাকিবে। আর যারা অনুসরণ করবে তারা সুন্নত অনুসরণ করার কারণে দুনিয়া এবং আখেরাতে দ্বিধাগ্রস্ত হইবে না। রাসূলে পাক (সা.) এর প্রতি যে আন্তরিক মহব্বত ও ভালবাসা পয়দা হয় সেই ভালবাসার তাগিদে হৃদয় মনে সুন্নতের অনুসরণ ও অনুপ্রেরণা পয়দা হয়। এই সুন্নতের অনুসরণের মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


পোস্টটি পড়ে আপনার কেমন লাগলো তা অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জানাবেন

আপনার ইসলামিক সংক্রান্ত কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করতে পারেন


আপনার পছন্দ হতে পারে

পোস্টটি পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ

আরো ভালো ভালো ইসলামিক পোস্ট পেতে টেক্সটাইল বাংলাকে সাবস্ক্রাইব করুন

Leave a Comment